চট্টগ্রাম   সোমবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২১  

শিরোনাম

পৃথিবীর সকল বাবার প্রতি অগাধ শ্রদ্ধা


অনলাইন ডেস্ক    |    ০৯:৫৫ পিএম, ২০২০-০৬-২১



পৃথিবীর সকল বাবার প্রতি অগাধ শ্রদ্ধা

বাবাকে হাসতে দেখেছি, বহুপথ বাজারের তলে হাতে নিয়ে হেঁটে যেতে দেখেছি। আবার রাতে ঘুম থেকে তুলে আপেল খেতে ডাকতেও দেখেছি। কিন্তু দেখেনি কোনোদিন হতাশায়, কস্ট গুলো দেখাতে। বলছিলাম আমার বাবার কথা, বয়স প্রায় ৬০। এক বছরের মধ্যে হারিয়েছেন আপন ভাই ও জীবন সঙ্গিনীকে মানে আমার মাকেও। এ করোনাকালেও উনার ভালোবাসার যেন কমতি নেই, সকাল বিকাল বের হলে মায়ের মত বলে, সাবধানে যাচ্ছ, মাস্ক মুখে দেয় আরো কতো কি।

বাবা ঠিক মা নয়। একটু দূরের। বাইরে বাইরেই বেশি থাকেন। কঠিন চেহারা। শক্ত চোয়াল। অত সহজে হাসেন না। বাবার সঙ্গে কথা বলতে হয় মেপে। ভুলচুক হলেই বকা খাওয়ার ভয়। চারপাশে দেয়াল তুলে রাখা এই বাবাকে কোনো না কোনো সময় ঠিক চিনে ফেলে সন্তান। বাইরে তিনি যত কঠিন, ভেতরে ততটাই কোমল। সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য নিজের বর্তমানকে হাসিমুখে উৎসর্গ করা এই বাবাদের আজ আলাদাভাবে স্মরণ করার দিন।

আমার মাকে হারানোর পর দেখলাম মায়ের জন্য একটুও কাঁদে না। তবে তিনি লুকিয়ে কাঁদতে বেশি পছন্দ করেন, না হলে মায়ের কবরের পাশে গিয়ে কেন কাঁদেন। ঈদের দিন যখন নামাজ পড়ে মায়ের রুমে কাঁন্নার শব্দ শুনতে পেলাম বুঝলাম এ বুঝি মায়ের কথা মনে পড়েছে বাবার। আমাদের দেখতে দেন না তাঁর কষ্টটা, আমরা কস্ট পাব বলে। আমরা চার ভাইকে মানুষ করতে কতই না কস্ট করেছেন তাঁরা দুইজনেই। অল্প সময়ে মা হারিয়ে গেছে এখন আমাদের বাবা সব। বাবা’কে নিয়ে আমাদের সংস্কৃতিতে খুব বেশি আদিখ্যেতা নেই। বাবা মানে দূরের মানুষ। সংসারের রাশভারী, নামজাদা মেহমান। তাঁকে পাতলা পর্দার মতো ঘিরে থাকে ভয়, রাগ, শাসন আর গাম্ভীর্য। আবার কীভাবে যেন তাঁর মধ্যেই খুঁজে পাওয়া যায় এক আকাশ নির্ভরতা আর একরাশ নিরাপত্তার অনুভূতি। তিনি ভালোবাসেন ঠিকই, স্নেহও করেন, কিন্তু সবই যেন সীমিত মাত্রায়। বাবার সঙ্গে সন্তানের সম্পর্কে মিশে থাকে খানিকটা দূরত্ব, খানিকটা সংকোচ, খানিকটা ভীতি মেশানো শ্রদ্ধা। বলছি, আগের দিনের বাবাদের কথা। তবে সেই অবস্থা এখন আর নেই বললেই চলে। এখনকার সময়ে অনেক বাবাই সন্তানদের বন্ধুর মতো, একদম কাছের মানুষ। স্নেহশীল। কর্তব্যপরায়ণ। সন্তানদের সব কাজ ও অকাজের প্রশ্রয়দাতা। অনেকে বলেন, মেয়েরা নাকি বাবার বেশি প্রিয় হয়, আর বাবারাও নাকি মেয়েদের কাছ থেকেই বেশি আদর পান। কথাটায় যুক্তি হয়তো নেই, কিন্তু খুব একটা ভুলও বোধহয় নেই। এমন ছেলে মেয়ে খুব কমই আছে, বাবার জন্য যার মনে বিশেষ দুর্বলতা নেই। বাবা ভালোবাসে, আবার শাসনও করে। যত্ন নেয়, আবার বকুিনও দেয়। আর বাবার জন্য সন্তান জান-জীবন। সন্তানদের সুখই যেন বাবার সুখ।

আমার বাবা মানে মাথার ওপর শীতল কোমল ছায়া। বাবা মানে ডালপালা মেলা এক বিশাল বটবৃক্ষ। ধুম বৃষ্টিতে বা তীব্র জ্বালাময় রোদে বাবা সন্তানের কাছে শিন্তদায়ক ছাতা। ঘুটঘুটে অন্ধকারে পথ দেখানো আলো। হয়তো অনেক সময় মুখ ফুটে বাবাকে ভালোবাসি কথাটা বলা যায় না, কিংবা বলা হয় না। কিন্তু কিছু ভালোবাসা আছে যা মুখে না বললেও মনে মনে সহস্রবার বলা হয়ে যায়। আর যাকে উদ্দেশ্য করে বলা তিনি ঠিকই তাঁর অন্তর দিয়ে তা শুনতে পান। বুঝতেও পারেন।

সবাইকে বাবা দিবসে শুভেচ্ছা, পৃথিবীর সকল বাবাকে জানাই হাজার হাজার সালাম, পৃথিবীর বেঁচে থাকা সকল বাবার সুস্থতা এবং দীর্ঘায়ু কামনা করছি ! আর যে সকল বাবা না ফেরার দেশে চলে গেছেন তাঁদের আত্নার মাগফেরাত কামনা করছি !!

পৃথিবীর সকল বাবার প্রতি অগাধ শ্রদ্ধা৷
ভালো থাকুক।।।

-মো. ইমরান হোসাইন
সংবাদকর্মী
দৈনিক মানবকন্ঠ ও দৈনিক চট্টগ্রাম প্রতিদিন

রিলেটেড নিউজ

বাবা তোমার জন্যই আজকের আমি

বাবা তোমার জন্যই আজকের আমি

শাহদাত হোসেন নিশাদ : আজ ২১ জুন। বিশ্ব বাবা দিবস। জুন মাসের তৃতীয় রোববার বিশ্বের প্রায় ৭৪টি দেশে বাবা দিবস পালিত হয়। ইতি...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

আনোয়ারায় মাস্ক না পরায় ১৮ ব্যক্তির জরিমানা

আনোয়ারায় মাস্ক না পরায় ১৮ ব্যক্তির জরিমানা

কোরবান আলী টিটু, আনোয়ারা প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখা এবং মাস্ক না পরায় ১৮ ব্যক্তিকে  জরিমানা...বিস্তারিত


সড়কে দুধ ঢেলে প্রতিবাদ

সড়কে দুধ ঢেলে প্রতিবাদ

কর্ণফুলী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : দুধের সম্পূরক মূল্য বৃদ্ধি, করোনা পরিস্থিতিতে খামারিদের ক্ষতি, করোনাকালে দুধ বিক্রি না হওয়া, গো-খা...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর